স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ও ফ্রেন্ডশিপ চরাঞ্চলের মানুষের জন্য নিরাময়যোগ্য অন্ধত্ব মোকাবিলায় একসঙ্গে কাজ করবে

Print Friendly and PDF

সম্প্রতি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক বাংলাদেশ ও ফ্রেন্ডশিপ বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলে চর (নদী দ্বীপ) সম্প্রদায়ের মধ্যে নিরাময়যোগ্য অন্ধত্ব মোকাবিলা করার জন্য একসঙ্গে কাজ করার জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে।
এই প্রকল্পটি উপকূলীয় চর জনগোষ্ঠীর মধ্যে মানসম্মত চক্ষু স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের মাধ্যমে নিরাময়যোগ্য অন্ধত্ব হ্রাসে অবদান রাখবে। এই প্রকল্পটি উত্তরাঞ্চলের চারটি জেলা; গাইবান্ধা, জামালপুর, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ এবং দক্ষিণাঞ্চলের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলায় উন্নতমানের চক্ষু সেবা প্রদানের সঙ্গে সঙ্গে নিরাময়যোগ্য অন্ধত্ব হ্রাস করতে কাজ করবে। প্রকল্পটির আওতায় ফ্রেন্ডশিপের ভাসমান হাসপাতালের সেবার বাইরেও ফ্রেন্ডশিপ কমিউনিটি মেডিক এইডস এর মাধ্যমে উল্লিখিত সম্প্রদায়ের চক্ষু সেবা এবং সেবা স¤পর্কে সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করবে যাতে করে তারা উন্নত স্বাস্থ্যসেবা পাওয়ার ব্যাপারে আরও সচেতন হতে পারে। বাংলাদেশের দক্ষিণ অঞ্চলের উপকূলীয় সম্প্রদায়গুলোর জন্য বছরের শুরুর দিকে একই রকম একটি প্রকল্প চালু করা হয়েছিল, এই উদ্যোগ উক্ত প্রকল্পের  অনুরূপ আরেকটি প্রকল্প। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক-এর সিইও নাসের এজাজ বিজয় এবং ফ্রেন্ডশিপ-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং নির্বাহী পরিচালক মিস রুনা খান নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এই প্রকল্পটি ব্যাংকের গ্লোবাল উদ্যোগ ‘সিইং ইজ বিলিভিং’ একটি অংশ। এই বছর স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড গ্লোবাল উদ্যোগ ‘সিইং ইজ বিলিভিং’ ১৫ বছর উদযাপন করছে, যা বিশ্বব্যাপী অনঅগ্রসর সম্প্রদায়ের মধ্যে ১৬০টি চক্ষু সেবা প্রকল্পের অর্থায়ন করে ১৫ কোটি লোককে সাহায্য করেছে। ব্যাংকের বিশ্বব্যাপী ফ্ল্যাগশিপ কমিউনিটি উদ্যোগ ‘সিইং ইজ বিলিভিং’ ২০০৩ সালে একটি অপারেশন থিয়েটার এবং ই¯পাহানি ইসালামিয়া আই ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের একটি চাইল্ড ওয়ার্ড নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করে।
প্রতিরোধযোগ্য অন্ধত্ব বাংলাদেশের অন্যতম জনস্বাস্থ্য সমস্যা। প্রতিবেদন অনুযায়ী চোখের ছানি সমস্যায় চিকিৎসার বাইরে থাকা সবচেয়ে বেশি মানুষের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। সহজ এবং ব্যয়সাপেক্ষ অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে চোখের ছানি প্রতিরোধ বা চিকিৎসা করা যায়।


৫ হাজার প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ দিতে এসইআইপি’র সঙ্গে রিহ্যাব-এর ২০ কোটি টাকার চুক্তিপত্র স্বাক্ষর
নির্মাণ খাতে দক্ষ শ্রমিক তৈরির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণের জন্য রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (রিহ্যাব) এর সঙ্গে চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন স্কিলস্ ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (এসইআইপি)। সম্প্রতি প্রবাসী কল্যাণ ভবনে এসইআইপির কনফারেন্স রুমে এই চুক্তিপত্র স্বাক্ষর হয়। রিহ্যাব এর পক্ষে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন রিহ্যাব প্রেসিডেন্ট আলমগীর শামসুল আলামিন।  এ সময় রিহ্যাব এর ভাইস প্রেসিডেন্ট (প্রথম) লিয়াকত আলী ভূইয়া, রিহ্যাব পরিচালক এবং রিহ্যাব ট্রেনিং ইনস্টিটিউট স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মো. আল আমিন, রিহ্যাব পরিচালক ড. প্রকৌশলী মাসুদা সিদ্দিক রোজী, রিহ্যাব পরিচালক কামাল মাহমুদ, আসাদুর রহমান জোয়ার্দার, প্রকৌশলী মো. মহিউদ্দিন সিকদার, মো. জহির আহমেদ এবং প্রকৌশলী এন, এম, নূর কুতুবুল আলম উপস্থিত ছিলেন।  এসইআইপি’র পক্ষে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন নির্বাহী প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) জালাল আহমেদ। চুক্তিপত্রের আওতায় রিহ্যাব প্রথম দফায় ৫টি ট্রেডে ৫ হাজার প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ দিবে। ৫ হাজার প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ দিতে এসইআইপি রিহ্যাবকে ২০ কোটি টাকার সহায়তা দিবে। রিহ্যাব নিজস্ব ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দিবে প্রায় ১২০০ শিক্ষার্থীকে। আর বাকি প্রশিক্ষণার্থীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে কিশোরগঞ্জ, কুমিল্লা, মাগুরা এবং ময়মনসিংহের চারটি ইনস্টিটিউটে আউট সোর্সিং এর মাধ্যমে।

সাপ?তাহিক পতিবেদন

অনুষ্ঠান
 মতামত সমূহ
পিছনে 
 আপনার মতামত লিখুন
English বাংলা
নাম:
ই-মেইল:
মন্তব্য :

Please enter the text shown in the image.