[প্রকৃতি ও জীবন] এ সপ্তাহের পর্ব-হাওরের জীববৈচিত্র সংরক্ষণ

Print Friendly and PDF

প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে অধিক হারে মাছ আহরণ এক সময় দেশীয় মাছের প্রজাতিগুলোকে বিপন্ন করে তোলে। বিষটোপ কিংবা ফাঁদ দিয়ে পাখি শিকার করায় হুমকির মুখে পড়ে দেশি ও পরিযায়ী পাখি। পাশাপাশি কমে যাচ্ছে অন্যান্য প্রাণীর সংখ্যাও

বাংলাদেশের জলাভূমির একটা বিশাল অংশজুড়ে রয়েছে হাওর। এসব হাওর মূলত স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যের মিঠাপানির জলাধার। টাঙ্গুয়ার হাওর, হাইল হাওর, হাকালুকি হাওরসহ ছোট বড় অসংখ্য হাওর রয়েছে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি হাওরগুলো জীববৈচিত্র্যেও সমৃদ্ধ। ভাসমান, অর্ধ-নিমজ্জিত ও নিমজ্জিত উদ্ভিদÑ এই তিন ধরনের জলজ উদ্ভিদ দেখা যায় হাওরে। উদ্ভিদের ফাঁকে ফাঁকে খেলা করে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। মাছ ছাড়াও শামুক, ঝিনুক ও কীটপতঙ্গ দেখা যায়। আরও রয়েছে বিভিন্ন ধরনের অমেরুদ-ী প্রাণী।
হাওরের প্রতিবেশ ব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ হলো পাখি। সবচেয়ে বেশি দেখা যায় কালেম, বক ও পানকৌড়ি। এদের সঙ্গে মিশে যায় লালঠেঙ্গী পাখিও। শীতকালে পরিযায়ী পাখি আসে। হাওরজুড়ে পাখি ছাড়াও দেখা যায় বেশ কিছু উভচর, সরীসৃপ ও স্তন্যপায়ী প্রাণী।
হাওরের পরিবেশগত গুরুত্ব অপরিসীম। জীববৈচিত্র্যে সমৃদ্ধ হাওরের জলজ উদ্ভিদ পচে গিয়ে মাটি উর্বর করে। উর্বর মাটিতে ফলে সোনার ফসল। শীতকালে পানি কমে গেলে হাওর পাড়ের মানুষ মাছ শিকার করে জীবিকা নির্ভর করে। এসব মাছ দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তবে বিংশ শতাব্দীর মধ্যভাগ থেকে হাওরের ভেতর জনবসতি গড়ে উঠতে শুরু করে। তাদের চাহিদা মেটাতে অতিমাত্রায় জলজ প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণ শুরু হয়। প্রোটিনের চাহিদা মেটাতে অধিক হারে মাছ আহরণ এক সময় দেশীয় মাছের প্রজাতিগুলোকে বিপন্ন করে তোলে। বিষটোপ কিংবা ফাঁদ দিয়ে পাখি শিকার করায় হুমকির মুখে পড়ে দেশি ও পরিযায়ী পাখি। পাশাপাশি কমে যাচ্ছে অন্যান্য প্রাণীর সংখ্যাও। বৈরী ফলাফলে হাকালুকি হাওরকে প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।
হাওরের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। নিয়মিত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কীভাবে প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণ করতে হবে তা শেখানো হচ্ছে। জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমে স্থানীয় জনগোষ্ঠী সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করছে। ফলে দেশি মাছের উৎপাদন বাড়ছে এবং বন্যপ্রাণীর নিরাপদ বিচরণ নিশ্চিত হচ্ছে। তবে জনগণের সঙ্গে সরকারি সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয়হীনতা দূর করতে হবে। এছাড়াও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় যুগোপযোগী গবেষণা করতে হবে। তবেই হাওরের জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে, সমৃদ্ধ হবে হাওরবাসীর জীবন। 
হাওরের বিভিন্ন দিক এবং কীভাবে হাওরের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ করতে হবে সেসব গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ নিয়ে এ সপ্তাহের পর্ব ‘হাওরের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ’। অনুষ্ঠানটি পরিকল্পনা পরিচালনা ও উপস্থাপনা করছেন মুকিত মজুমদার বাবু। আলোচনায় অংশগ্রহণ করছেন সিএনআরএস-এর ডিরেক্টর আনিসুল ইসলাম। বাংলাদেশের প্রথম জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশ নিয়ে ধারাবাহিক টেলিভিশন অনুষ্ঠান ‘প্রকৃতি ও জীবন’ প্রচারিত হচ্ছে চ্যানেল আইয়ে প্রতি বৃহস্পতিবার রাত ১১.৩০ মিনিটে, পুনঃপ্রচার প্রতি শুক্রবার সকাল ১১.০৫ মিনিটে এবং রবিবার সকাল ৫.৩০ মিনিটে।

সাপ?তাহিক পতিবেদন

ডায়রি/ধারাবাহিক
 মতামত সমূহ
পিছনে 
 আপনার মতামত লিখুন
English বাংলা
নাম:
ই-মেইল:
মন্তব্য :

Please enter the text shown in the image.