[প্রকৃতি ও জীবন] এ সপ্তাহের পর্ব- শাপলা ও পদ্ম

Print Friendly and PDF

জলজ দূষণ, অধিক আহরণ, অপরিকল্পিত বাঁধ নির্মাণ ও কৃষিজমি সম্প্রসারণে শাপলা ও পদ্মসহ অনেক জলজ উদ্ভিদ আজ হুমকির মুখে। এসব উদ্ভিদ ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে এদের ওপর নির্ভরশীল প্রাণী, নষ্ট হবে জলজ প্রতিবেশব্যবস্থা

বাংলাদেশ উদ্ভিদবৈচিত্র্যে সমৃদ্ধ। স্থলভাগের পাশাপাশি জলভাগেও রয়েছে বিভিন্ন জলজ উদ্ভিদ। এর মধ্যে শাপলা ও পদ্ম অন্যতম। পৃথিবীতে বিভিন্ন ধরনের শাপলা দেখা গেলেও বাংলাদেশে তিন ধরনের শাপলা দেখা যায়। সাদা, লাল ও নীল। তবে বেশি দেখা যায় সাদা শাপলা। সৌন্দর্য, বিশাল বিস্তৃতি ও অধিক প্রাপ্যতার কারণে সাদা শাপলা বাংলাদেশের জাতীয় ফুল। শাপলার পাতা পানির উপর ভেসে থাকে। দেখতে কিছুটা হৃদপি-াকার এবং একপাশে বিভক্ত। পাতার রঙ সবুজ, চারপাশ খাঁজ কাটা। এর কা- পানির নিচে মাটির মধ্যে থাকে। পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কা-ও বাড়তে থাকে। রাতের অন্ধকারে শাপলা মুগ্ধতা ছড়ায়। বছরজুড়ে ফুল ফুটলেও বর্ষা ও শরতে বেশি দেখা যায়।
শাপলার কাছাকাছি বৈশিষ্ট্যের ফুল পদ্ম। এর পাতা দেখে সহজেই শাপলা থেকে আলাদা করা যায়। পদ্মের পাতা শাপলা পাতার চেয়ে একটু বড় ও গোলাকার। পানির খানিকটা উপরে উঠে থাকে। বছরজুড়ে জলাবদ্ধ জায়গায় পদ্ম ভালো জন্মে। ফুল ফোটে সূর্য ওঠার সময়। পদ্ম সুগন্ধীময় ও বিভিন্ন রঙের হয়। সাধারণত এ দেশে দুই ধরনের পদ্ম দেখা যায়। রক্ত ও শ্বেতপদ্ম। শরতের শেষে পদ্মফুল ফুটতে শুরু করে। হেমন্ত এবং শীতেও কিছু কিছু ফুল দেখা যায়।
শাপলা ও পদ্ম উভয়ই অর্ধ-নিমজ্জিত জলজ উদ্ভিদ। এগুলো পানিতে জন্মে এবং পানিতেই পুরো জীবনচক্র সম্পন্ন করে। এ কারণে ডাঙার উদ্ভিদের সঙ্গে এদের মিল দেখা যায় না। শাপলা ও পদ্ম হাওর, বাঁওড়, বিল, নদী, নালা, পুকুরসহ বাংলাদেশের প্রায় সব ধরনের অভ্যন্তরীণ জলাশয়ে জন্মে। তবে বেড়ে ওঠার জন্য স্রোতহীন জলাশয় ভালো। শাপলা ও পদ্মসহ অন্যান্য জলজ উদ্ভিদের কারণেই জলজ পরিবেশ ভালো থাকে। খাদ্য হিসেবেও পদ্ম ও শাপলার লতা, মূল ও বীজ বেশ জনপ্রিয়। এজন্য হাওরপাড়ের অসংখ্য মানুষের জীবন ও জীবিকা এসব উদ্ভিদের ওপর অনেকটাই নির্ভরশীল। জলজ দূষণ, অধিক আহরণ, অপরিকল্পিত বাঁধ নির্মাণ ও কৃষিজমি সম্প্রসারণে শাপলা ও পদ্মসহ অনেক জলজ উদ্ভিদ আজ হুমকির মুখে। এসব উদ্ভিদ ক্ষতিগ্রস্ত হলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে এদের ওপর নির্ভরশীল প্রাণী, নষ্ট হবে জলজ প্রতিবেশব্যবস্থা।
শাপলা ও পদ্মের জানা-অজানা তথ্য নিয়ে এ সপ্তাহের পর্ব ‘শাপলা ও পদ্ম’। অনুষ্ঠানটি পরিকল্পনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন মুকিত মজুমদার বাবু। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেছেন প্রকৃতিবিষয়ক লেখক আলম শাইন। বাংলাদেশের প্রথম জীববৈচিত্র্য ও পরিবেশ নিয়ে ধারাবাহিক টেলিভিশন অনুষ্ঠান ‘প্রকৃতি ও জীবন’ প্রচারিত হচ্ছে চ্যানেল আইয়ে প্রতি বৃহস্পতিবার রাত ১১.৩০ মিনিটে, পুনঃপ্রচার প্রতি শুক্রবার সকাল ১১.০৫ মিনিট এবং রবিবার সকাল ৫.৩০ মিনিটে।

সাপ?তাহিক পতিবেদন

ডায়রি/ধারাবাহিক
 মতামত সমূহ
পিছনে 
 আপনার মতামত লিখুন
English বাংলা
নাম:
ই-মেইল:
মন্তব্য :

Please enter the text shown in the image.