জনপ্রিয় অ্যাপ টিকটক

Print Friendly and PDF

সুইটি আক্তার

অতি সম্প্রতি ফেসবুক লিপ সিংক লাইভনামে সংগীত প্রেমীদের জন্য নতুন একটি ফিচার চালু হয়েছে। ফেসবুক থেকে শুরু করে স্মিউল, ডাবস্ম্যাশ সবই বলতে গেলে সারা বিশ্বে বেশ পপুলার অ্যাপস ছিল। ইয়াং জেনারেশনের বিনোদনের জন্য নিত্য নতুন যুক্ত হচ্ছে বিনোদনমূলক অ্যাপস। তেমনি একটি বিনোদনমূলক অ্যাপস টিকটক।
চীনা কোম্পানি টিকটক কিংবা লাইকের মতো অ্যাপসগুলো শুধু লিপ সিংক সার্ভিস দিয়েই জনপ্রিয়তা পেয়ে গেছে। চীনে ভিডিও অ্যাপস টিকটকের মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারী ৫০ কোটি ছাড়িয়েছে। এতে ব্যবহারকারীরা প্রিয় গান ও মুভি ডায়ালগের সঙ্গে নিজের লিপ সিংক জুড়ে দিতে পারে। এই অ্যাপসের মাধ্যমে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা তাদের পছন্দের শিল্পীদের প্রিয় গানগুলোর সঙ্গে ঠোঁট মিলিয়ে তার ভিডিও তাদের টাইম লাইনে পোস্ট করতে পারে। ফেসবুকের হেড অব মিউজিক বিজনেস ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড পার্টনারশিপ তামারা রিভন্যাক ও হেড অব মিউজিক অ্যান্ড রাইটস ফ্রেড বেইলি এক অফিসিয়াল ব্লগ পোস্টে এ তথ্য জানিয়েছেন।
টিকটক আমেরিকা, লন্ডন থেকে শুরু করে এশিয়ার দেশগুলোতে বর্তমানে বেশ জনপ্রিয়। বাংলাদেশে এর জনপ্রিয়তা কম নয়। বড় থেকে ছোট সবাই তাদের পছন্দমতো সংগীত বা কোনো সিনেমার ডায়লগ দিয়ে লিপ সিংক করে ভিডিও বানাচ্ছেন। প্রতিবেশী দেশ ভারতে টিকটক এখন তরুণ প্রজন্মের আসক্তি। তরুণ প্রজন্ম নিজেদের অভিনয়, এক্সপ্রেশন এবং নানা ভঙ্গিমায় মোবাইল ট্রানজিশন করে গানের লাইন বা সিনেমার ডায়গল দিয়ে নিজেদের প্রতিভা দেখিয়ে দিচ্ছে সারা বিশ্বকে।
২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে চীনে টিকটক চালু হয়। পরে অন্যান্য দেশেও অ্যাপটির ব্যবহার শুরু হয়। এর ব্যবহারকারীরা প্লাটফর্মটিতে স্পল্পদৈর্ঘ্যরে ভিডিও শেয়ারের সুযোগ পাচ্ছে। তাছাড়া আপত্তিকর কনটেন্ট থাকার অভিযোগে সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়া সরকার দেশটিতে টিকটক অ্যাপস বন্ধ করে দিয়েছিল। পরে অ্যাপ কর্তৃপক্ষ এ ধরনের কনটেন্ট সরিয়ে ফেলার প্রতিশ্রুতি দিলে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়। সান ফ্রান্সিসকোভিত্তিক মোবাইল অ্যাপ গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্সর টাওয়ারের তথ্য অনুযায়ী জানা গেছে, চলতি বছরের প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী আপল অ্যাপ সেন্টার থেকে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড হয়েছে টিকটক। থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া ও ভিয়েতনামে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের মধ্যে এক নম্বরে রয়েছে টিকটক।
তরুণ প্রজন্ম রাতারাতি জনপ্রিয়তা লাভের জন্য টিকটকের ওপর আসক্ত হয়ে পড়ছে। তারা প্রতিনিয়ত নিত্যনতুন টিকটকের মাধ্যমে ভিডিও বানিয়ে ফেসবুকে পোস্ট করছে।

সাপ?তাহিক পতিবেদন

ফিচার ও অন্যান্য
 মতামত সমূহ
পিছনে 
 আপনার মতামত লিখুন
English বাংলা
নাম:
ই-মেইল:
মন্তব্য :

Please enter the text shown in the image.