বিশ্ব বাণিজ্য মেলা (ওয়ার্ল্ড এক্সপো) ২০২৫

Print Friendly and PDF

জা পা ন
রাহমান মনি

অনেক জল্পনা কল্পনা শেষে অবশেষে জাপানের ওসাকা শহর হতে যাচ্ছে ২০২৫ সালে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব বাণিজ্য মেলার আয়োজক (স্বাগতিক) শহর। ২৪ নভেম্বর ২০১৮ ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ‘ব্যুরো ইন্টারন্যাশনাল ডেস এক্সপোজিশন (বি.আই.ই )’-এ  সরাসরি ভোটে জয়ী হয়ে এই গৌরব অর্জন করে। আর এই জয়লাভ পেতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে  হয়েছে কর্মকর্তাদের। বিশেষ করে ওসাকা জেলার গভর্নর ইচিরো মাৎসুই এবং ওসাকা শহরের মেয়র হিরোফুমি ইয়োশিমুরা’র অবদান অপরিসীম।
মোট ১৫৬টি দেশের প্রতিনিধিরা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ২৪ নভেম্বর প্যারিসে ভোটের আয়োজনে। এতে মূল পর্বে জাপানের ওসাকা, রাশিয়ার একারতেরিংবারগ, ফ্রান্সের প্যারিস এবং আজারবাইজানের বাকু আয়োজনে ইচ্ছুক শহরের দাবিদার হিসেবে অংশ নেয়।
ভোটের প্রথম রাউন্ডে আজারবাইজানের বাকু ছিটকে পড়ে। পরে রানঅফ ভোটে রাশিয়ার একারতেরিংবারগ কে ৬১-৯২ ভোটে পরাজিত করে আয়োজক শহরের মর্যাদা পেতে সক্ষম হয় ওসাকা। একটি কৃত্রিম দ্বীপে ‘সোসাইটি ফাইভ’ থিমের মাধ্যমে মেলাটি আয়োজনের প্রস্তাব দেয় ওসাকা। বিভিন্ন ধরনের রোবট ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা কীভাবে মানবকল্যাণে ব্যবহার করা যায়, এ থিমে তা তুলে ধরা হয়।
বিশ্ব বাণিজ্য মেলা ২০২৫ এর অফিসিয়াল নাম দেয়া হয় ‘ওসাকা-কানসাই জাপান এক্সপো ২০২৫’। ওসাকা-কানসাই নাম দেয়ার কারণ হচ্ছে ওসাকা এবং তার পার্শ্ববর্তী শহর কিওটো, কোবে  এবং নারা’র সহযোগিতায় এমন একটি বৃহত্তম আয়োজন করতে যাচ্ছে।
৪৮ বছর আগে ১৯৭০ সালে প্রথম বারে ওসাকা অত্যন্ত সফল একটি আয়োজন করতে পেরেছিল। ৫৫ বছর পর আগামী আয়োজনটি হবে দ্বিতীয় বারের মতো। প্রথমবারের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো আয়োজনকে আরও সফল করার জন্য ইতোমধ্যে কাজ শুরু করা হয়েছে।
প্যারিসে ভোটাভুটি অনুষ্ঠানে ভিডিও মেসেজের মাধ্যমে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে বলেন, ‘আমাদের বিশ্বকে একটি চমৎকার স্থান’ হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে ২০২৫ সালের মে-নভেম্বর প্রদর্শনীর আয়োজন করা হবে। তিনি আরও বলেন, জাপানের সৌন্দর্যকে পুরো বিশ্বের সামনে উপস্থিত করার এটি একটি সুবর্ণ সুযোগ।
২০২৫ সালে ওয়ার্ল্ড এক্সপো ৩ মে শুরু হবে এবং ৩ নভেম্বর তা শেষ হবে।
এছাড়াও ২০০৫ সালে জাপানের আইইচি প্রদেশে নাগোয়া শহর এ আয়োজিত বিশ্ব বাণিজ্য মেলা যা ‘আইইচি এক্সপো ২০০৫’ নামে অভিহিত ছিল তাও অত্যন্ত সফলভাবেই সম্পন্ন করতে পেরেছিল জাপান। আইইচি এক্সপো’র বিশেষত্ব ছিল প্রকৃতির উপর বিরূপ প্রভাব না ফেলে এতো বড় সফল একটি আয়োজন সম্পন্ন করা।
১৭ মে ২০১৮ বৃহস্পতিবার অভিজাত হোটেল নিউ ওতানিতে চঅখগ৮ নেতৃবৃন্দের সম্মানে জাপান পররাষ্ট্রমন্ত্রী কোনো তারো’র দেয়া এক সংবর্ধনা ও নৈশভোজে চঅখগ৮ নেতৃবৃন্দ ছাড়াও কূটনৈতিক কোরের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, বিভিন্ন মন্ত্রীবর্গ, উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন প্রদেশের কর্মকর্তাগণ, জোট সরকারের অন্যতম শরিক দল কোমেইতো পার্টি অফ জাপান এর প্রেসিডেন্ট নাতসুও ইয়ামাগুচিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, দেশি, বিদেশি এবং আন্তর্জাতিক মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ‘ওসাকা-কানসাই জাপান এক্সপো ২০২৫’ প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তুলে ধরা হয়েছিল।
সর্বপ্রথম আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীটি ১৮৫১ সালে ভিক্টোরিয়ান যুগের লন্ডনে সংস্কৃতি ও শিল্প অগ্রগতি উদযাপন করতে আয়োজন করা হয়েছিল। এ আইডিয়া খুব দ্রুত বিশ্বের অন্য শহরগুলোও লুফে নেয়। আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী আয়োজন করে নতুন নতুন সৃষ্টির মাধ্যমে নিজেদের অগ্রগতিকে তুলে ধরতে থাকে তারা। যেমনÑ ১৮৮৯ সালে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী উপলক্ষেই প্যারিসে নির্মাণ করা হয়েছিল আইফেল টাওয়ার।
rahmanmoni@kym.biglobe.ne.jp

সাপ?তাহিক পতিবেদন

প্রবাসে
 মতামত সমূহ
পিছনে 
 আপনার মতামত লিখুন
English বাংলা
নাম:
ই-মেইল:
মন্তব্য :

Please enter the text shown in the image.