কোন খণ্ডে কি আছে

Print Friendly and PDF

পাকিস্তান সরকারের তৎকালীন গোয়েন্দা সংস্থা Intelligence Branch (IB) ১৯৪৭ এর দেশ ভাগের পরপরই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেশব্যাপী তাঁর প্রায় প্রতিটি রাজনৈতিক কর্মসূচি ও অন্যান্য কার্যক্রম সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করে। ১৯৪৮ সাল থেকে প্রাপ্ত তাঁর নামে ৪৭টি ব্যক্তিগত ফাইল (পিএফ)-এ সংরক্ষিত ডকুমেন্টগুলোর মূল তথ্য খণ্ড অনুযায়ী (১-১৪) নিম্নরূপ :

থম খণ্ড     :    ১৯৪৮-১৯৫০    ভাষা আন্দোলন; জমিদারি প্রথা বিলুপ্তকরণ দাবি; ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন; আওয়ামী লীগের জন্ম; শেখ মুজিবুর রহমানের চিঠিপত্র; বিভিন্ন লিফলেট বিতরণ; বক্তব্য-বিবৃতি; গ্রেফতার ও কারাবরণ, কারাগারে আত্মীয়-স্বজন ও নেতা-কর্মীদের সাক্ষাৎ ইত্যাদি।
দ্বিতীয় খড    :    ১৯৫১-১৯৫২    ভাষা আন্দোলন, State Language Committee of Action-এর কার্যক্রম; বিভিন্ন জনসভা; গ্রেফতার, কারাবরণ, মামলার শুনানি; চিঠিপত্র; বন্ড দিয়ে মুক্তি পেতে অস্বীকৃতি; জেলখানায় শেখ মুজিবুর রহমানের অনশন কর্মসূচি ও অসুস্থতা; পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী খাজা নাজিম উদ্দিনের সাথে সাক্ষাৎ; করাচি-লাহোর ও পাঞ্জাবে প্রেস কনফারেন্স, পিকিং-এ পিস কনফারেন্সে অংশগ্রহণ; এসবি ও সিআইডি করাচির গোপন রিপোর্ট; দেশব্যাপী সফর, নেতাকর্মীদের সংগঠিতকরণ ও দলীয় এজেন্ডা প্রচার, পত্রিকার পেপার কাটিং ইত্যাদি।
তৃতীয় খণ্ড    :    ১৯৫৩    শেখ মুজিবুর রহমান ও সোহরাওয়ার্দীর উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলাসহ চট্টগ্রাম-ময়মনসিংহ ও বরিশাল সফর; ওয়াচ রিপোর্ট; চিঠিপত্র; মওলানা ভাসানীসহ অন্য নেতাদের মুক্তির দাবি; ঝধভবঃু অপঃ, পাট ও শিক্ষা নীতির সমালোচনা; ভাষা আন্দোলন; জেলখানায় আইবি অফিসারের ইন্টারভিউ রিপোর্ট; পত্রিকার পেপার কাটিং ইত্যাদি।
চতুর্থ খণ্ড   :    ১৯৫৪-১৯৫৭    ডঈজ; বিভিন্ন জনসভার এক্সট্রাক্ট-প্রসিডিংস; গ্রাউন্ডস অব ডিটেনশন; চিঠিপত্র; আসাম থেকে মওলানা ভাসানীর চিঠি, লাহোর থেকে গোলাম মোহাম্মদ খান লুন্দখোর-এর চিঠি, ঊধংঃ চধশরংঃধহ চৎবংং ডড়ৎশবৎং অংংড়পরধঃরড়হ মিটিং-এর বক্তব্য, বিভিন্ন জেলায় প্রদত্ত ভাষণ; শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকের মন্ত্রিসভায় মন্ত্রিত্ব গ্রহণ; জেলখানায় পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ; ১৩৭ জন নিরাপত্তা বন্দীর তালিকা; শেখ মুজিবুর রহমানের শারীরিক বর্ণনা; পাকিস্তানের আইনমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাতের জন্য করাচি গমন; শেখ মুজিবুর রহমান ও মওলানা ভাসানীর চট্টগ্রাম সফর ও ২১ দফার পক্ষে প্রচারণা; গণপরিষদের অধিবেশন; আইবি অফিসারদের বিভিন্ন রিপোর্ট; সরকারের বৈদেশিক নীতির তীব্র সমালোচনা; শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক ২৫ শে মে ‘খাদ্য দাবি দিবস’ পালনের সিদ্ধান্ত; কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের ব্যর্থতার সমালোচনা; চট্টগ্রামে ভুখা মিছিল; পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ কাউন্সিল অধিবেশনে সাধারণ সম্পাদকের রিপোর্ট পেশ; খুলনা-যশোর-ফরিদপুর ইত্যাদি জেলার সফর তালিকা; খাদ্য পরিস্থিতি সরেজমিনে তদন্তের জন্য প্রেসিডেন্ট ইস্কান্দার মীর্জাকে অনুরোধ; সরকারি অগণতান্ত্রিক নীতির তীব্র নিন্দা; ক্ষমতাসীন চক্র পূর্ব পাকিস্তানকে কলোনিতে পরিণত করিয়াছে ও রাষ্ট্রের প্রতি উদাসীন শাসকগোষ্ঠীর বিচার হওয়া উচিত মর্মে করাচিতে শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক দাবি উত্থাপন; বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রীর দায়িত্বপ্রাপ্ত শেখ মুজিবুর রহমানের কেবিনেট থেকে পদত্যাগ ইত্যাদি।
পঞ্চম খণ্ড  :    ১৯৫৮-১৯৫৯    শেখ মুজিবুর রহমানের চিকিৎসার জন্য কলকাতা গমন সংক্রান্ত গোপন রিপোর্ট; করাচি গমন; বিভিন্ন পেপার কাটিং; রাজনীতি সংক্রান্ত গোপনীয় রিপোর্ট; এজেন্ট-ওয়াচ রিপোর্ট ও চিঠিপত্রের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ অফিসিয়ালনাট-প্রতিবেদন; শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যবহৃত জব্দকৃত গাড়ি ফেরত চেয়ে কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন; কারাগারে অবস্থানকালে তাঁর স্ত্রী-মা-চার সন্তান-ভাই, আইনজীবী, মানিক মিয়া ও ব্যক্তিগত সহকারীগণের সাথে সাক্ষাতের জন্য কর্তৃপক্ষের নিকট স্ব-হস্তে লিখিত আবেদন, কারাগারে সাক্ষাতের জন্য ফজিলাতুন্নেসা মুজিব-পিতা ও অন্যান্য ব্যক্তিবর্গের আবেদন; সেন্সর সার্টিফিকেট; ডিটেনশন হতে অব্যাহতি চেয়ে কারাকর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন; শেখ মুজিবুর রহমানসহ অন্যান্য নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মুলতবি রাজনৈতিক মামলার বিবরণ; দুর্নীতি দমন কমিশন বরাবর সকল সম্পত্তির বিবরণ সম্বলিত পত্র ও এ সংক্রান্ত অফিসিয়াল পত্রাদি; উপদেষ্টা বোর্ড চেয়ারম্যান (বিচারক) কর্তৃক ২৮.৩.১৯৫৯ এর পূর্ববর্তী কারাভোগ ও তাঁর রাজনীতির সূচনা বিষয়ক রিপোর্ট ইত্যাদি।
ষষ্ঠ খণ্ড  :    ১৯৬০-১৯৬১    খুলনা, ফরিদপুরসহ বিভিন্ন জেলায় সফর ও এ সংক্রান্ত পত্রিকার নিউজ; ঊীঃৎধপঃ, ডঈজ, ঈজ, ইৎরবভ ঐরংঃড়ৎু; এইচ.এস. সোহরাওয়ার্দী, শেখ মুজিবুর রহমান ও অন্য নেতাদের চলাচলের উপর গোয়েন্দা নজরদারি; আলফা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির কন্ট্রোলার কর্তৃক নারায়ণগঞ্জে শেখ মুজিবুর রহমানকে রিসিপশন প্রদান সংক্রান্ত পত্র; কথিত দুর্নীতি মামলায় ২ বছরের সাজা ও অন্তর্বর্তীকালীন জামিন; আপিল সংক্রান্ত পত্রিকার নিউজ ও সরকারি চিঠিপত্র; করাচি গমন ও এ সংক্রান্ত চিঠিপত্র; শহীদ দিবস পালনের জন্য এসএম হলে আগমন; আলফা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ও এর কন্ট্রোলার শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে আইবি’র অনুসন্ধানী প্রতিবেদন; চট্টগ্রাম-টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহে সাংগঠনিক সফর; ছাত্র আন্দোলন সংক্রান্তে এফএইচ হলে আগমন; হাইকোর্ট কর্তৃক দুর্নীতি মামলায় শেখ মুজিবুর রহমানকে অব্যাহতি; ৮.১০.১৯৬১ তারিখ বিকাল হতে শেখ মুজিবুর রহমান ধানমন্ডি ৩২ নং রোডের ৬৭৭ নং নতুন বাসায় বসবাস শুরু করেন; সোহরাওয়ার্দীর ঢাকায় আগমন; শেখ মুজিবুর রহমান, মানিক মিয়া ও অন্য নেতাদের সাথে সাক্ষাৎ ইত্যাদি।
সপ্তম খণ্ড     :    ১৯৬২-১৯৬৩    ৭.২.১৯৬২ তারিখ দেশরক্ষা বিধি বলে শেখ মুজিবুর রহমানসহ অন্যান্য আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেফতার; কারাগার থেকে তাঁর পরিবারের সদস্যদের সহিত সাক্ষাৎ চেয়ে ডিআইজি আইবি’র নিকট আবেদন, সাক্ষাৎ চেয়ে আইবি’র নিকট আত্মীয়-স্বজন ও অন্যান্যদের আবেদন; ডিটেনশনের আদেশ; শেখ লুৎফর রহমানের চিঠি; শেখ মুজিবুর রহমানের মুক্তি; মানিক মিয়াসহ করাচি যাত্রা ও সোহরাওয়ার্দীর সাথে সাক্ষাৎ, কাকরাইলস্থ সোহরাওয়ার্দীর বাসায় শেখ মুজিবুর রহমানসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দের সাক্ষাৎ, ‘পাকিস্তানে গুজরানওয়ালায় সোহরাওয়ার্দীকে লক্ষ্য করিয়া গুলিবর্ষণের পশ্চাতে যে সরকারি ইঙ্গিত রহিয়াছে’- শেখ মুজিবুর রহমানের দাবি; খুলনা সার্কিট হাউজ ময়দানের জনসভায় পূর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তানের অর্থনৈতিক বৈষম্য ও রাজনীতির উপরে ভাষণ, উত্তরবঙ্গে জনসভায় সোহরাওয়ার্দীসহ অন্য নেতাদের ভাষণ, ২১শে ফেব্রুয়ারি  শহীদ দিবস পালনে দেশবাসী বিশেষ করে যুবসমাজের প্রতি শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বান, ছাত্রদের উপর পুলিশি জুলুমের নিন্দা। শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে অপপ্রচারের কারণে আইবি’কে তদন্তের জন্য চিঠি; চট্টগ্রামের ঘূর্ণিদুর্গত অঞ্চল সফর; এডিএম কোর্টে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার শুনানি; ক্রুগ মিশন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করার দাবি; করাচি ও লন্ডন সফর; গোপালগঞ্জের উপনির্বাচনে ভীতি প্রদর্শন ও সরকারি যন্ত্র ব্যবহারের অভিযোগ; আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির সভা; শিক্ষকদের দাবি পূরণে সরকারকে আহ্বান ইত্যাদি।
অষ্টম খণ্ড  :    ১৯৬৪    শেখ মুজিবুর রহমানের লাহোর ও করাচি গমন সংক্রান্ত অফিসিয়াল চিঠিপত্র ও পেপার কাটিং; তাঁর গতিবিধি সংক্রান্ত ঊীঃৎধপঃ, ডঈজ, উজ ও ডধঃপয জবঢ়ড়ৎঃ; বিভিন্ন জেলা সফর সংক্রান্ত পেপার কাটিং; অফিসিয়াল চিঠিপত্র ও লংহ্যান্ড নোট সংক্রান্ত কাগজপত্র; তাঁর গ্রেফতার, শুনানি, আদালতের অর্ডারশিটের কপি ও অফিসিয়াল চিঠিপত্র, ব্রিফ হিস্ট্রি সংক্রান্ত চিঠিপত্র; মিস ফাতেমা জিন্নাহর পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগে যোগদান এবং তাঁকে ভোট দেওয়ার জন্য শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বান সংক্রান্ত বক্তব্য ও পেপারকাটিং ইত্যাদি।
নবম খণ্ড  :    ১৯৬৫    শেখ মুজিবুর রহমানসহ অন্য নেতাদের গতিবিধির উপর সরকারের গোয়েন্দা নজরদারি; তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের বিভিন্ন জেলায় সফর সংক্রান্ত পেপার কাটিং; সরকারি চিঠিপত্র ও লংহ্যান্ড নোট সংক্রান্ত কাগজপত্র; ডাক ও রেল কর্মচারীদের দাবির প্রতি শেখ মুজিবুর রহমানের সমর্থন সংক্রান্ত বক্তব্য; শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক কথিত আপত্তিকর বক্তব্য এবং ইবহমধষর নড়ড়শষবঃ রিঃয পধঢ়ঃরড়হবফ ‘ইযধরৎধ অসধৎ ঔধমড়’ সংক্রান্ত তদন্তের সরকারি চিঠিপত্র; শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা পরিচালনার জন্য সরকারি আইনজীবী নিয়োগ; গ্রেফতার, মামলার শুনানি, উচ্চ ও নিম্ন আদালত কর্তৃক অর্ডারশিটের কপি ও অফিসিয়াল চিঠিপত্র ইত্যাদি।
দশম খণ্ড  :    ১৯৬৬    পল্টন ময়দানে কথিত আপত্তিকর বক্তৃতা প্রদানের মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন; বিভিন্ন জেলায় ৬ দফা সংক্রান্ত জনসভা; জাতীয় সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে লাহোর গমন এবং এ সংক্রান্ত পত্রিকার নিউজ; আওয়ামী লীগের প্রাদেশিক কাউন্সিলের সভায় শেখ মুজিবুর রহমানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়া; উত্তরবঙ্গ-দক্ষিণবঙ্গ-ফরিদপুর-চট্টগ্রাম ইত্যাদি জেলায় ৬ দফার প্রচারণা সংক্রান্ত সফর; ধানমন্ডির বাসায় ৬ দফা সংক্রান্তে আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির সভা; সিলেটে আওয়ামী লীগের বার্ষিক সম্মেলনে যোগদান ও জনসভায় ভাষণ; যশোরে জনসভা থেকে ফেরার পথে গ্রেফতার ও একই দিনে মুক্তি, সিলেটে দায়েরকৃত মামলায় ধানমন্ডির বাসা থেকে গ্রেফতার ও পরবর্তীতে ময়মনসিংহ থেকে মুক্তি; খাদ্য সংকট মোকাবিলার জন্য পূর্ণাঙ্গ রেশনিং দাবি সংক্রান্ত পত্রিকার নিউজ ইত্যাদি।
একাদশ খণ্ড :    ১৯৬৬    সিলেটের মামলায় আদালতে হাজিরা প্রদান ও জনসভায় যোগদান; নারায়ণগঞ্জ টাউন হল ময়দানে জনসভায় ভাষণ; পাবনায় দায়েরকৃত মামলায় ধানমন্ডির বাসা থেকে গ্রেফতার; আত্মীয়-স্বজন ও আইনজীবীদের শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে সাক্ষাতের আবেদন; ডিটেনশন অর্ডার; শেখ মুজিবুর রহমানসহ আটক ৬ জন নেতার মুক্তির জন্য ঢাকা হাইকোর্টে রিট আবেদন দাখিল ও কোর্ট কর্তৃক রুল ইস্যু; শেখ মুজিবুর রহমানসহ অন্য নেতাদের গ্রেফতারে দেশব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশ; অসুস্থতার কারণে জেল হাসপাতালে ভর্তি; হেবিয়াস কর্পাস পিটিশনের শুনানি; অসুস্থ মাতাকে দেখার জন্য শেখ মুজিবুর রহমানের প্যারোলে মুক্তির আবেদন; ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বিশেষ আদালতে মামলার শুনানি; করাচি আওয়ামী লীগ কর্তৃক শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল রাজবন্দীর মুক্তি দাবি; রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হতে অব্যাহতি; ডিসি ঢাকা কর্তৃক ডিটেনশন বহাল রাখার আদেশ ইত্যাদি।
দ্বাদশ খণ্ড  :    ১৯৬৭    ঢাকা সেন্ট্রাল জেলে থাকাকালে মামলা শুনানি সংক্রান্ত পত্রাদি; ডা. টি. এইচ. খানের নিকট শেখ মুজিবুর রহমানের চিকিৎসা; তাঁর পিতার অসুস্থতা সংক্রান্ত টেলিগ্রাম বার্তা; কারাদ- সংক্রান্ত আপিল; আটকাদেশের বিরুদ্ধে রিট; হেবিয়াস কর্পাসের আবেদন, কারাগারে গুরুতর অসুস্থতা সংক্রান্ত কাগজপত্র ইত্যাদি।
ত্রয়োদশ খণ্ড  :    ১৯৬৮-১৯৬৯    আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলায় ব্রিটিশ আইনজীবী থমাস উইলিয়ামের নিয়োগ সংক্রান্ত চিঠিপত্র; রিট পিটিশন; রাষ্ট্রদ্রোহ মামলাসহ অন্যান্য মামলার শুনানি সংক্রান্ত চিঠিপত্র; ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের সাথে সাক্ষাৎ; ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের অসুস্থতা সংক্রান্ত পত্র; আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার চার্জ গঠন; মামলা থেকে অব্যাহতি; যুক্তরাষ্ট্র-লন্ডন ও করাচি থেকে শেখ মুজিবুর রহমানের নিকট প্রেরিত বিভিন্ন চিঠিপত্র; ৬ দফা সংক্রান্ত চিঠিপত্র; ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে রিলিফ বিতরণ ও পরিদর্শন; কয়েকজন পাকিস্তানি নেতার ঢাকায় আগমন ও শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে সাক্ষাৎ; নিউইয়র্ক টাইমস করেসপন্ডেন্ট এর সাক্ষাৎ; লাহোর সফর; রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধু উপাধি প্রদান; লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর মুক্তির জন্য তহবিল সংক্রান্ত চিঠিপত্র; ১৯৬৯ এর গণঅভ্যুত্থান ইত্যাদি।
চতুর্দশ খণ্ড  :    ১৯৭০-১৯৭১    উত্তরবঙ্গে উৎপাদিত তামাক ও আখের ন্যায্য মূল্য দাবি, যমুনা সেতুসহ সেচ পরিকল্পনা প্রণয়নের দাবি, তিস্তা বাঁধ নির্মাণ, পদ্মা- মেঘনা-যমুনা নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দাবি; দেশের বিভিন্ন জেলায় ৬ ও ১১ দফা সম্পর্কে প্রচার-প্রচারণা; চট্টগ্রাম সফরের সময় শেখ মুজিবুর রহমানের মোটরকেড দুর্ঘটনা সংক্রান্ত বিবরণ; ট্যাক্স-লেভি সিস্টেমের সমালোচনা; উপকূলে বেড়িবাঁধ নির্মাণ; আদমজী জুটমিল পুনরাং চালুকরণ; নির্বাচনের মাধ্যমে ৬ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে বিভিন্ন জেলায় শেখ মুজিবুর রহমানের জনসভা এবং এ সংক্রান্ত পত্রিকার নিউজ; সরকারি ও অফিসিয়াল চিঠিপত্র; পাকিস্তানের নিশ্তার, লাহোর ও কোয়েটায় জনসভা সংক্রান্ত পত্রিকার নিউজ, রেডিও টেলিভিশনে প্রদত্ত জাতির উদ্দেশে ভাষণে নিজ দলের ব্যাখ্যা সংক্রান্ত পত্রিকার খবর, উপকূলীয় এলাকায় ঝড়-জলোচ্ছ্বাস সংক্রান্ত চিঠিপত্র ও পত্রিকার নিউজ; শেখ মুজিবুর রহমানসহ অন্য রাজনৈতিক নেতাদের নিরাপত্তা জোরদার সংক্রান্ত অফিসিয়াল চিঠিপত্র; বিভিন্ন তারিখের বক্তৃতা সংক্রান্ত লংহ্যান্ড নোট; রেসকোর্স ময়দানসহ বরিশাল-চট্টগ্রাম-পটুয়াখালী-পিরোজপুর-বরগুনা-নোয়াখালী-টাঙ্গাইল-খুলনা সফর সংক্রান্ত গোয়েন্দা নোট; গোয়েন্দা নজরদারি সংক্রান্ত পত্র, শেখ মুজিবুর রহমান ও জুলফিকার আলী ভুট্টোর সাক্ষাৎ সংক্রান্ত গোয়েন্দা চিঠিপত্র ইত্যাদি।

সাপ?তাহিক পতিবেদন

প্রচ্ছদ কাহিনী/প্রতিবেদন
  • ব্র্যাক ব্যাংক এবং বিকাশ এর মধ্যে ফান্ড ট্রান্সফার সংক্রান্ত চুক্তি স্বাক্ষর
  •  মতামত সমূহ
    পিছনে 
     আপনার মতামত লিখুন
    English বাংলা
    নাম:
    ই-মেইল:
    মন্তব্য :

    Please enter the text shown in the image.